,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সরকারি প্রতিষ্ঠানে ৯ লাখ অডিট আপত্তি

abul mal3নিজস্ব প্রতিবেদক বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ  অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, ৮ লাখ ৭৬ হাজার ১৩টি সরকারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অনিষ্পত্তিকৃত অডিট আপত্তি উঠেছে, যার অর্থের পরিমাণ ৭ লাখ ৭৮ হাজার ৭৩৯ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) সকালে জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুল রহমান মানিকের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

এর আগে সকাল ১০টা ৫২ মিনিটে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দিনের কার্যসূচি শুরু হয়। অধিবেশনের শুরুতেই অনির্ধারিত আলোচনায় আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা করছেন সরকার দলীয় এমপিরা।

অর্থমন্ত্রী দেশের উল্লেখযোগ্য ৬৫টি বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের বিভাগভিত্তিক অনিষ্পত্তিকৃত আপত্তির সংখ্যা এবং জড়িত টাকার পরিমাণ তুলে ধরেন।

অর্থবিভাগের ৬ হাজার ৩৪৪টি প্রতিষ্ঠানের ১৯৯৫৬.২৪ কোটি,  ৬৮ হাজার ১৯৪টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের  টাকার পরিমাণ ১৪৫৯৯৬.১৬ কোটি, ৩ হাজার ১৯৫টি মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৮৪৩.৩২০৬ কোটি, ২ হাজার ৭৭৭টি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১৯৬৬.১২ কোটি, ৩৩ হাজার ১৭৬টি খাদ্য বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৮৭৪২.৪২ কোটি, ১০ হাজার ৬১টি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ২৮০২.৮৯৬১ কোটি, ১১ হাজার ৬৪৬টি মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ বিষয় প্রতিষ্ঠানের ২০০৫.৯৮ কোটি, ২১ হাজার ৩১৬টি গৃহায়ণ ও গণপূর্ত বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ২৫৭৫৫.৯৯৫ কোটি, ২১ হাজার ২৭৪টি আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১৯৩১.২৭৮৯ কোটি, ১১ হাজার ৫২টি ভূমিবিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৯১৭২.১১০৬ কোটি, ৬৭১টি নির্বাচন বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৭৫০.১৪৭৯ কোটি, ৩ হাজার ৪০৭টি যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৬২৪.২৩৬ কোটি টাকার অডিট আপত্তি উঠেছে।

এ ছাড়া অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২২ হাজার৭২৮টি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানে ২৪১১৪.৬১৫ কোটি টাকা, ২০ হাজার ৫৫৩টি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১৩৫৬৪.৮০৪ কোটি, ১৫ হাজার ২৫৬টি জনপ্রশাসন বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১৩৫৬৪.৮০৪ কোটি, ৭৪ হাজার ৭৮৭টি শিক্ষা বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ২৫০৯৯.০৮৮ কোটি, ১২ হাজার ৫০০টি সমাজকল্যাণ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ২১৯৪.১৪ কোটি, ৫১ হাজার ৬৫৮টি কৃষি বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৮০৫৪.৩৮৩২ কোটি, ১ লাখ ৮২ হাজার ৮৬০টি স্থানীয় সরকার বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৫৬২৯২.৫১৫ কোটি,৭ হাজার ৩৫৩টি পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১২৫৫১.৮৭৩ কোটি, ২৪ হাজার ৫৩৫টি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানে ২২৪০৯.৫৩৬ কোটি টাকা, ১১ হাজার ৪৪৮টি শিল্প বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৩০৮২০.৭ কোটি, ২২ হাজার ৫৯৯টি প্রতিরক্ষা বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১১৫৬২.৪৮ কোটি টাকা অনিষ্পত্তিকৃত আপত্তি উঠেছে।

এ ছাড়াও ২ হাজার ১৪৯টি ধর্মবিষয়ক প্রতিষ্ঠানে ২৯৮.৫৪ কোটি, ৫৩টি রাষ্ট্রপতির কার্যালয় বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৩.২৩৬ কোটি, ৭৩১টি অর্থনৈতিক সম্পর্কিত বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ২৯৩. ৩ কোটি, ১ হাজার ৪২৭টি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ৫২৪.০০৪৮৭ কোটি, ৬৩৩টি পরিবেশ ও বন বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১১২৫.৯৭১৮ কোটি টাকা, ৩১টি বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের ০.৪৬ কোটি, ৩৬টি সুপ্রিম কোর্ট বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৯.১৪ কোটি, ৮৮টি মন্ত্রিপরিষদ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১৯.৬৩ কোটি, ১৪ হাজার ৭৬৪টি পানিসম্পদ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ১৪৯০৯.১৪৩ কোটি, ৯ হাজার ৬৮৫টি পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৫০০.৮৭ কোটি, ২৩ হাজার ৪৩টি স্বরাষ্ট্র বিষযক প্রতিষ্ঠানের ২০০০.০৮৩১ কোটি, ৫ হাজার ৯২ কোটি বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৬৭১৭৯.৮৩৫ কোটি, ১৩ হাজার ৩৬৯টি বিদ্যুৎ বিভাগ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ৪৬০৬৬.৭৮১ কোটি, ৪ হাজার ১০৭ টি নৌ-পরিবহন বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের ২৯৯০.৫৮৬ কোটি টাকার উল্লেখযোগ্য সরকারি প্রতিষ্ঠানের অনিষ্পত্তিকৃত অডিট আপত্তির তথ্য জানান অর্থমন্ত্রী।

 

মতামত...