,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সরকারী সিদ্ধান্ত অমান্য করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চলছে ভারী যানবাহন

trak-loryকামরুল ইসলাম দুলু, সীতাকুন্ড প্রতিনিধি,বিডিনিউজ রিভিউজঃ ঘরমুখী মানুষের চলাচল নির্বিঘ্ন করতে কোরবানির ঈদের আগে-পরে ছয় দিন জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কে ট্রাক-লরি চলাচল বন্ধ রাখা হবে।এমন সিদ্ধান্ত হয় বুধবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে। সরকারী সিদ্ধান্তের পরও সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ভারী যানবাহন (লজিষ্টিক, কার্ভাড ভ্যান) চালাচল করছে। এতে করে সৃষ্টি হচ্ছে বড় ধরনের যানজট। ফলে ঈদে ঘর মুখো মানুষের ভোগান্তির সীমা নেই। জানা যায়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সেতু ও যোগাযোগ মন্ত্রী
ওবায়দুল কাদের কর্তৃক ঘোষিত ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে ঈদের তিন দিন আগে ও ঈদের পরবর্তী তিন দিন মহাসড়ক গুলোতে ভারী যানবাহন চলাচল নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন। কিন্তু কিছু ব্যবসায়ী নিজস্ব লজিষ্টিক ও কার্ভাড ভ্যান নির্ভেজালে তাদের মালামাল আনা-নেয়া করছে মহাসড়ক দিয়ে। এতে করে সাধারণ মানুষ
নানা ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। অন্যদিকে ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে দূর দূরান্ত থেকে আসা ট্রাক ভর্তি গরু, মহিষ, ছাগল গাড়ী যানযটের কারণে নির্দিষ্ট সময় নির্দিষ্ট বাজারের পৌঁছাতে পারছে না। বারআউলিয়া হাইওয়ে থানা ওসি ছালেহ্ আহম্মদ পাঠান জানান, সীতাকুণ্ড উপজেলাধীন কিছু প্রতিষ্ঠান এখনো বন্ধ না হওয়ার কারণে ও অন্যদিকে বন্দরের খালাসী পণ্য বিভিন্ন গোডাউন, রি-রোলিং মিলস্ আনা-নেয়া করছে। আমাদের অতিরিক্ত পুলিশ ফোর্স রাস্তায় টহল দিচ্ছে এবং প্রত্যকে ঘন্টার খবরা-খবর আমি নিচ্ছি । এর কারণে রাস্তা যানযট হচ্ছে না বলে আমি মনে করি। এবং সীতাকুণ্ড উপজেলা অতিক্রমকালে কোন ভারী যানবাহন আমাদের চোখে পড়লে তার বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।

মতামত...