,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সাংবাদিকদের মুখোমুখি নতুন নির্বাচন কমিশন

নিজস্ব প্রতিবেদক,১৫ ফেব্রুয়ারী বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::  শপথ গ্রহনের পর প্রথমবারের মতো কার্যালয়ে গিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন নতুন নির্বাচন কমিশনররা। আজ বুধবার বিকাল ৫টায় আগারগাঁও নির্বাচন কমিশনের নিজস্ব ভবনে নতুন নির্বাচন কমিশনারা সাংবাদিকদের মখোমুখি হয়েছেন। এর আগে বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে নতুন সিইসি নির্বাচন ভবনে প্রবেশ করেন। এর পরপরই নির্বাচন কমিশনাররাও প্রবেশ করেন। সেখানে তাদের বরণ করে নেয়ার জন্য উপস্থিত ছিলেন ইসি কর্মকর্তারা। এদিকে আজ বেলা ৩টার পর পরই প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে সাবেক সচিব কে এম ূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন ৫ সদস্যের নতুন নির্বাচন কমিশনের সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান।
অন্যদিকে সব স্বার্থের উর্ধ্বে থেকে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন আয়োজনের সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করার শপথ নিয়েছেন নতুন নির্বাচন কমিশনের সদস্যরা। সাবেক সচিব কে এম নূরুল হুদা নেতৃত্বাধীন কমিশনের সদস্য হিসেবে রয়েছেন সাবেক সচিব রফিকুল ইসলাম, সাবেক অতিরিক্ত সচিব মাহবুব তালুকদার, অবসরপ্রাপ্ত জেলা জজ কবিতা খানম ও অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী।
তারও আগে সিইসি নূরুল হুদাসহ নতুন কমিশনের সদস্যরা আজ বেলা ২ টা ৫০ এর মধ্যেই জাজেস লাউঞ্জে পৌঁছে যান। প্রধান বিচারপতি আসেন বিকাল ঠিক ৩টায়। তিনি প্রথমে শপথ পড়ান সিইসি কে এম নূরুল হুদাকে। সিইসি শপথ নামায় সই করার পর তাকে অভিনন্দন জানান প্রধান বিচারপতি। এরপর একইভাবে একে একে মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী প্রধান বিচারপতির কাছ থেকে শপথ নেন।
শপথ পরিচালনা করেন সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল সৈয়দ আমিনুল ইসলাম। নতুন ইসি গঠনের জন্য সার্চ কমিটির নেতৃত্ব দেওয়া বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ছাড়াও আপিল বিভাগের বিচারক এবং সুপ্রিম কোর্ট, নির্বাচন কমিশন এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন এ অনুষ্ঠানে।
প্রসঙ্গত নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন ৫ সদস্যের এই কমিশনের অধীনেই আগামী ৫ বছর জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের সব নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ২০১৯ সালের শুরুতে তাদের অধীনেই হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন।

মতামত...