,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সাতকানিয়ায় রাতের আঁধারে বসতঘরে আগুন ১ গ্রেফতার

মোঃ নাজিম উদ্দিন

aদক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম: পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অসহায় মাহফুজা বেগমের বসতঘর পুড়ে দিয়েছে তাঁরই এক প্রতিবেশী।  বৃহষ্পতিবার ১৪ এপ্রিল  রাত ১১টার সময় উপজেলার ছদাহা বিছন্যাপাড়া মোছইন্নার বর বাড়ী এলাকায় ঘটনাটি ঘটে । ঘটনার পরের দিন শুক্রবার বিকালে মাহফুজা বেগম বাদী হয়ে সাতকানিয়া থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। এজাহারের প্রেক্ষিতে গত ১৬ এপ্রিল শনিবার সকালে ২ জনকে আসামী করে সাতকানিয়া থানায় মামলা রুজু করা হয়।
মামলার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার ছদাহা বিছন্যাপাড়া এলাকার নুর মোহাম্মদের স্ত্রী মাহফুজা বেগমের প্রতিবেশী আবুল কাশেমের সাথে ভিটেবাড়ি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। আবুল কাশেম অত্যাচারী প্রকৃতির লোক বিধায় গরীব মাহফুজা বেগম কে তাঁর নিজ ভিটেবাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে জায়গা দখলের চেষ্টা করে। মাহফুজা বেগম তাঁর অত্যাচার সহ্য করে নিজের স্বামী ভিটে আকড়ে থাকলে কাশেম তাঁর উপর ক্ষিপ্ত হয়। ভিটেবাড়ি ছেড়ে মাহফুজা চলে না যাওয়ায় গত ২৩ মার্চ রাতে মাহফুজা, তাঁর স্বামী ও ছেলেকে কাশেম বেধড়ক মারধর করে। পরে আবুল কাশেমকে আসামী করে মাহফুজা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত কর্মকর্তা সাতকানিয়া থানার এসআই এমরান হোসেন আবুল কাশেমকে গ্রেফতার করতে চাইলে স্থানীয় গন্যমান্য ও আত্মীয় স্বজনরা মীমাংসা করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে থানা থেকে সময় নেন। এরই মধ্যে আবুল কাশেম ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে অসহায় মাহফুজার বসতঘর পুড়ে দেয়। রাতের আঁধারে আগুন দেয়ায় কোন রকমে প্রান নিয়ে ঘর থেকে বেড়িয়ে এসেছি কিছুই বের করতে পারিনি বলে জানান গরীব মাহফুজা বেগম।
ছদাহা ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোসাদ হোসেন চৌধুরী বলেন, কাশেম অসহায় মাহফুজাকে উচ্ছেদ করার চেষ্টা করছেন দীর্ঘদিন ধরে। আমি কয়েকবার তাকে সতর্কও করে দিয়েছি।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল করিম জানান, কাশেম একজন অত্যাচারী লোক অসহায় মাহফুজার ভিটেবাড়ি দখলের জন্য সে এ কাজ করেছে।
তদন্ত কর্মকর্তা এএসআই এমরান হোসেন জানান, এজাহারের প্রেক্ষিতে তদন্ত করে ঘরে আগুন দেয়ার সত্যতা পেয়েছি, মামলা রুজু করা হয়েছে। জড়িত থাকার অপরাধে প্রধান আসামী আবুল কাশেমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
গ্রেফতারকৃত আবুল কাশেম একই এলাকার মৃত সিরাজুল হকের ছেলে।
সাতকানিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মো. ফরিদ উদ্দিন খন্দকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, জায়গা দখলের জন্য একজন অসহায় গরীব মানুষের ঘরে আগুন দেয়া কত জগন্য ব্যাপার। থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। জড়িতদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

মতামত...