,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সাতকানিয়ায় হাইওয়ে পুলিশের গাড়ী সাথে সিএনজি দুর্ঘটনা আহত ৫, সড়ক অবরোধ

মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাতকানিয়ায় দোহাজারী হাইওয়ে পুলিশের টহল অবস্থায় একটি সিএনজি অটোরিক্সাকে সিগন্যাল দিলে থামাতে দেরী হওয়ায় পুলিশের ভ্যান দিয়ে ধাক্কা দেয়ায় গাড়ীটি সড়কের সড়কের উপর উল্টে যায়। এতে চালকসহ ৫ যাত্রী আহত হয়। আহতদের উদ্ধার না করে হাইওয়ে পুলিশ দ্রুত ভ্যান নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। গত ২৩ শে নভেম্বর দুপুুর ১২ টার সময় উপজেলার কেরানীহাট গরুর বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সিএনজি চালক ও স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে এসে সড়ক অবরোধ করে। এতে উভয় পাশে দুই কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। পরে সাতকানিয়া থানা পুলিশ এসে অবরোধকারীদের ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন।
জানা যায়, বুধবার দুপুর ১২ টায় জনার কেঁওচিয়া মাষ্টার এলাকার আব্দুল আজিজ ভান্ডারী যাত্রী নিয়ে কেরানীহাট উলা মিয়া মার্কেটে যাওয়ার সময় গরুর বাজার এলাকায় পৌঁছলে দোহাজারী হাইওয়ে পুলিশ ভ্যান নিয়ে চলন্ত অবস্থায় বিপরীত দিক থেকে আসা তার সিএনজি অটোরিক্সাকে সিগন্যাল দেয়। এসময় সিএনজি অটোরিক্সাটি সড়কের পাশে থামাতে গেলে হাইওয়ে তাদের ভ্যান দিয়ে সিএনজিকে ধাক্কা দেয়। গাড়ীটি উল্টে গেলে পুলিশ আহতদের উদ্ধার না করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। স্থানীয় লোকজন এসে আহতদের উদ্ধার করে এলাইট হসপিটালে ভর্তি করে। আহতরা হলেন, সিএনজি চালক আব্দুল আজিজ (৪০), মোঃ রফিকুল ইসলাম বছক (৫৫), মোঃ মোবিন (৩৬), জাহানারা বেগম (৪৫) ও রওশন আরা (৪৮)। ঘটনার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সিএনজি চালক ও স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে এসে সড়ক অবরোধ করে একটি প্রাইভেট কার ভাংচুর করে। এসময় প্রায় আধা ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে।এতে উভয় পাশে দুই কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। যানজটের কারণে উভয় পাশের হাজার হাজার যাত্রী দুর্ভোগে পড়েন। পরে সাতকানিয়া থানা পুলিশ এসে অবরোধকারীদের ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়ে আসে। অবরোধ চলাকালে সিএনজি চালকরা বলেন, হাইওয়ে পুলিশের চাঁদাবাজিতে আমরা অতিষ্ট হয়ে পড়েছি। সিএনজি আটক করে নিয়ে গিয়ে তাদের চাহিদা অনুযায়ী টাকা না দিলে মামলা দিয়ে দেয়। এছাড়া সড়কে চলন্ত অবস্থায় ধাওয়া করে। এতে সড়ক দুর্ঘটনায় পতিত হয় সিএনজি অটোরিক্সাগুলো। তাদের এসব হয়রানি বন্ধ করার জন্য দাবি জানাচ্ছি। সাম্প্রতিক হাইওয়ে পুলিশের ধাওয়ায় ছদাহা চারা বটতল এলাকায় একটি সিএনজি উল্টে বেশ কয়েকজন আহত হয়।
এব্যাপারে দোহাজারী হাইওয়ে থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, পুলিশের গাড়ী দেখে সিএনজি চালক পালানোর চেষ্টা করলে সড়কের পাশে গাড়ীটি উল্টে যায়। এতে পুলিশের কি দোষ। পুলিশের গাড়ী দিয়ে ধাক্কা দেয়ার বিষয়টা মিথ্যা।

মতামত...