,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সাতকানিয়া পৌর নির্বাচনে সরে দাঁড়ালেন বিএনপি

491নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,২৭, ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):: পৌর নির্বাচনে সাতকানিয়ায় বিএনপি দলীয় প্রার্থী রফিকুল আলম নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা নিয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে।

সরকারী দল আওয়ামী লীগের চাপ এবং মিথ্যা মামলায় প্রশাসনের হয়রানির অভিযোগে নির্বাচন থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন বলে কয়েকটি মিডিয়াকে জানালেও বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় নির্বাচন মনিটরিং সেলের আহ্বায়ক মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন এটিকে আওয়ামী লীগ এবং মিডিয়ার বিভ্রান্তিকর প্রচার বলে দাবি করেছেন।

বিভিন্ন বেসরকারী টেলিভিশন স্ক্রলে এবং অনলাইন মিডিয়ায় খবর প্রকাশিত হয়েছে যে রবিবার দুপুরে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী রফিকুল আলম নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন।

রফিকুল আলম জানিয়েছেন, সরকারি দলের নেতাদের অব্যাহত চাপ, মিথ্যা মামলা দায়েরের মাধ্যমে তাকে এবং নেতাকর্মীদের হয়রানি এবং ভয়ভীতি-হুমকির কারণে তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে বাধ্য হয়েছেন। নেতাকর্মী, সমর্থকদের মামলা-হামলা থেকে রক্ষা করতে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানো ছাড়া তার কোনো উপায় ছিল না।

এদিকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে রফিকুল আলমের মোবাইল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। বেশ কয়েকবার রিং হবার পর তিনি ফোন বন্ধ করে দেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় নির্বাচন মনিটরিং সেলের আহ্বায়ক মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন  বলেন, ‘এ খবর বিভ্রান্তি সৃষ্টির জন্য প্রচার করা হচ্ছে। রফিকুল আলম তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেননি। এ রকম কোনো সিদ্ধান্ত হলে আমিই প্রথম জানব।’

তিনি বলেন, ‘দুইদিন আগে সরকার দলীয় লোকজন নারী নির্যাতনের একটি মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপির মেয়র প্রার্থী রফিকুল আলমকে পুলিশ দিয়ে হয়রানি করছে। এ কারণে তিনি দু’দিন ধরে এলাকাতে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারছেন না। সে সুযোগে তার বিরুদ্ধে সরকার দলীয় লোকজন মিডিয়াকে দিয়ে অপপ্রচার করছে।’

 

মতামত...