,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সাতকানিয়া-লোহাগাড়ায় মোটরসাইকেল চুরির হিড়িক!

মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি,বিডিনিউজ রিভিউজঃ ঈদকে সামনে রেখে দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়া-লোহাগাড়ায় মোটরসাইকেল চুরির হিড়িক পড়েছে। এতে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটের সদস্যরা। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতা না থাকায় প্রতিদিন বিভিন্ন জায়গায় গড়ছে মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা। চোরের দল মুর্হুতেই গাড়ির তালা ভেঙে ঘরের গেইটের ভিতর অথবা মার্কেটের সামনে পার্কিং থেকে নিয়ে যাচ্ছে এসব মোটরসাইকেল। ঘটে যাওয়া মোটরসাইকেল চুরির বিষয়ে নিকটস্থ থানায় বেশ কয়েকজন মালিক সাধারণ ডায়েরী করলেও অধিকাংশ মালিক পুলিশি সহায়তা নেয়নি।
এতে চুরি আতঙ্কে ভোগছেন গাড়ির মালিকরা। গাড়ি খোয়ানো মালিকরা মনে করেন মোটরসাইকেল চুরিতে কাজ করছে একটি প্রভাবশালী সংঘবদ্ধ চক্র।
দক্ষিণ চট্টগ্রামে সাতকানিয়ার কেরানীহাট ও লোহাগাড়ার আমিরাবাদ এ দু’টি শহর ব্যবসায়ীদের প্রাণ কেন্দ্র। এসব ব্যস্ততম এলাকায় প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত লোকজনের ভিড়ে জমজমাট থাকে। অথচ এই ব্যস্ততম এলাকা থেকে গাড়ির লক ভেঙে মানুষের অজান্তে দিনে ও রাতের প্রথম প্রহরে চোরের দল নিয়ে যাচ্ছে মোটরসাইকেলগুলি। এতে মোটরসাইকেলের মালিকরা যে কোনো জায়গায় গাড়ি পার্কিং করে রাখা নিয়ে আতঙ্কে ভোগছেন।

জানা যায়, গত ৩ জুলাই রোববারে সাতকানিয়া-লোহাগাড়ায় একই দিনে দুইটি মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে। রোববার রাত সাড়ে আটটায় উপজেলার মাদার্শা ইউনিয়নের বাসিন্দা মোঃ পারভেজের ১৫০ সিসি লাল কালারের পালসার (চট্টমেট্টো-ল-১১-৩৯১৩) গাড়িটি নিয়ে তার এক ছোট ভাই মোঃ আরিফ একটি কাজে এসেছিলেন কেরানীহাটের নিউ মার্কেটে। মোটরসাইকেলটি বনফুলের সামনে পার্কিং করে রেখে ৩০ মিনিট পরে এসে দেখে গাড়িটি চুরি হয়ে গেছে। এসময় আরিফ প্রতিবেদককে জানান, এই মাত্র গাড়িটি রেখে মার্কেটে কিছু কাজ শেষ করে এসে দেখতে পেলাম মোটরসাইকেলটি চুরি হয়ে গেছে। এমন অবস্থা যদি হয় মার্কেটের সামনে ভবিষ্যতে মোটরসাইকেল রাখা যাবেনা। এবিষয়ে থানায় সাধারণ করা হবে বলে আরিফ জানান। একইদিন সকালে লোহাগাড়ার পদুয়া এলাকার বাসিন্দা মোঃ রফিকের একটি সাদা কালারের ১৫০ সিসি ইয়ামাহা কোম্পানির ফেজার (চট্টমেট্টো ল-১১-০০৬১) নাম্বারের মোটরসাইকেলটি তার বাড়ির সামনের একটি কক্ষের তালা ভেঙে ভিতরে গাড়ির লক খুলে চুরি করে নিয়ে যায় গাড়িটি। ঘুম থেকে উঠে দেখতে পান তার মোটরসাইকেলটি চুরি হয়ে গেছে।
গত ৩০ জুন দিনের বেলায় কেরানীহাট নিউ মার্কেটের সামনে থেকে ১টি ডিসকভার চুরি হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। গত ১২ জুন দুপুরে লোহাগাড়া থানার দক্ষিনে ২০০ গজ দুরে পল্লী বিদ্যুতের সামনে মোটরসাইকেল রেখে বিল পরিশোধ করতে যান মোঃ নাসির উদ্দিন। ১০ মিনিট পরে এসে দেখেন তার ১৫০ সিসি লাল কালারের পালসার (চট্টমেট্টো ল-১২-৪৬৪৮) নাম্বারের মোটরসাইকেলটি চুরি হয়ে গেছে। পরে এ বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। এ ঘটনার কয়েক সপ্তাহ পার হলেও এখনো পর্যন্ত নাসিরের মোটরসাইকেলটি উদ্ধার হয়নি।
ছদাহা ইউনিয়নের নবনির্বাচীত মেম্বার মোঃ জাহেদুল ইসলাম রুবেল বলেন, গত কয়েকদিন ধরে এ অঞ্চলে হঠাৎ বেড়ে গেছে মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা। তাই মোটরসাইকেল নিয়ে কোথাও গেলে গাড়ি পার্কিং করলে মনের ভিতর একটা আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত রোববারে আমার আত্মীয় রফিকের ১টি ফেজার গাড়িও তার বাড়ি থেকে তালা ভেঙে চুরি করে নিয়ে গেছে।
এদিকে হঠাৎ মোটরসাইকেল চুরি বেড়ে যাওয়ায় আতঙ্কে ভোগছেন সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার মোটরসাইকেল মালিকরা। স্থানীরা মনে করেন চুরির বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপরতা বাড়ালে চোর সিন্ডিকেটের মূল হোতাদের গ্রেফতার করলে চুরির ঘটনা কমে আসবে।
সাতকানিয়া থানার ডিউটি অফিসার এসআই শাহজালাল বাবুল বলেন, সোমবার বিকাল পর্যন্ত থানায় কেউ মোটরসাইকেল চুরির বিষয়ে অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ ফেলেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার বলেন, অপরাধ দমনে পুলিশ সর্বদা মাঠে রয়েছে। মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় যেসব অভিযোগ পেয়েছি, তা আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মতামত...