,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সাধারণ মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানো প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর

hasina (hasimok)bnr ad 250x70 1নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ঢাকা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা এত বৃদ্ধির প্রস্তাব কেন? খেতাবপ্রাপ্তরা স্বচ্ছল। এখন সাধারণ মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানো দরকার।’

সোমবার (২ মে) সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার সাপ্তাহিক নিয়মিত বৈঠকে খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানো সংক্রান্ত প্রস্তাবনা উত্থাপন করা হলে তিনি এ মন্তব্য করেন। পরে প্রস্তাবটি সংশোধন করে পুনরায় উত্থাপনের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানো প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সাধারণ মুক্তিযোদ্ধারা অনেক কষ্টে জীবন-যাপন করছেন। অনেকের বাড়ি-ঘর নেই। দিনমজুর হিসেবে জীবিকা নির্বাহ করেন। ভাতা তো এখন সাধারণ মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বাড়ানো উচিৎ।’

শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধারা খেতাবের ভাতা পান, সাধারণ ভাতা পান, শহীদের ভাতা পান, অনেকের বাড়ি-ঘর করে দেয়া হয়েছে। তাদের কোনো সমস্যা নেই, তারা স্বয়ংসম্পূর্ণ। কাজেই সধারণ মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানো দরকার।’

এমতাবস্থায় খেতাবপ্রাপ্তদের ভাতা বাড়ানোর প্রস্তাবটি ফেরত পাঠানোর পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সমন্বয় করে নতুন করে প্রস্তাব উত্থাপনের কথা বলেন তিনি।

এদিকে বৈঠকে গত সপ্তাহে উত্থাপিত বিচারক অপসারণ সংক্রান্ত বিলের প্রসঙ্গ উত্থাপন করে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘৭২ এর সংবিধানে সংসদদের ভোটে বিচারক অপসারণ সংক্রান্ত বিধান অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেন। এখন তিনি এর বিরোধিতা করছেন কেন?’

এ সময় ড. কামাল হোসেনের বরাত দিয়ে আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেন, ‘ভারতের সংবিধানে এই বিধান আছে- কথাটি তখন ড. কামাল হোসেনই বলেছিলেন। এর প্রমাণ আমার কাছে আছে।’ তবে বাণিজ্য ও আইনমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রেক্ষিতে এ সময় প্রধানমন্ত্রী নীরব ছিলেন।

 

মতামত...