,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সারাদেশে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যর সঙ্গে জুমাতুল বিদা’র নামাজ আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, ২৪ জুন, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: সারাদেশে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যর সঙ্গে অশ্রুসিক্ত ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে মহান আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে মাহে রমজানের শেষ জুমা তথা জুমাতুল বিদা’র নামাজ আদায় করছেন মুসল্লিরা। নামাজ শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে দোয়া-মোনাজাত করা হয়েছে।

শুক্রবার রাজধানীর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ সারাদেশে মসজিদগুলোতে ব্যাপক মুসল্লির উপস্থিতিতে জুমাতুল বিদা পালিত হয়েছে।

বায়তুল মোকাররমে জুমাতুল বিদায় মুসল্লির ঢল নামে। দুপুর ১২টার আগেই মুসল্লি মসজিদের ভেতরে ও বাইরে কানায় কানায় পুর্ণ হয়ে যায়। নামাজের সময় মুসল্লির জায়গা হয় মসজিদের বাইরে খালি জায়গায়, রাস্তায়। যে যেখানে জায়গা পেয়েছেন সেখানেই বসে নামাজ আদায় করেন। জুমার নামাজ শেষে মোনাজাতে শামিল হন মুসল্লিরা। এসময় তারা গুনাহর জন্য ক্ষমা চেয়ে কান্নাকাটি করেন। অশ্রুসিক্ত নয়নে মুসল্লিদের আমিন আমিন ধ্বনীতে এক হ্রদয়গ্রাহী দৃশ্যের অবতারণা হয়।

জুমার নামাজে ইমামতি শেষে মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের ইমাম মাওলানা মহিউদ্দিন কাসেম।

মহান আল্লাহর দরবারে ফরিয়াদ করে তিনি বলেন, হে আল্লাহ, আমাদের সবার গুনাহ ক্ষমা করে দাও। আমাদের নামাজ, রোজা, দান-সদকা সব নেক আমল কবুল করে আমাদের সবাইকে খালেছ বান্দা হিসেবে কবুল করো। এই রমজানের উছিলায়, রমজানের শিক্ষা অনুসরণ করেই আজীবন আমাদের ইসলামী শরিয়ত মতে চলার তওফিক দান করো।

চিকুনগুনিয়া, প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ সব ধরণের বিপদ আপদ থেকে রক্ষার প্রার্থণা জানিয়ে বায়তুল মোকাররমের ইমাম বলেন, হে আল্লাহ চিকুনগুনিয়াসহ সবধরণের বালা মুছিবত, প্রাকৃতি দুযোগ থেকে আমাদের সবাইকে, দেশ ও মুসলিম উম্মাহকে হেফাজত করো।

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যর সঙ্গে দেশবাসীসহ সবাইকে ঈদুল ফিতর উদযাপনের জন্য মহান আল্লাহর দরবারে প্রার্থণা করেন তিনি।

বায়তুল মোকাররমের ইমাম বলেন, হে আল্লাহ, ঈদ করতে যারা বাড়িঘরে যাচ্ছে তাদের নিরাপদে যাওয়ার ব্যবস্থা করো, তারা নিরাপদে যেন কর্মস্থলে আসতে পারে, বিশেষ করে যে যেখানে আছে সবাইকে নিরাপদে চলাফেরা করার তওফিক দাও।

যাকাত ও সদকাতুল ফিতর আদায়ের আহ্বান :
জুমাতুল বিদার নামাজের পূর্বে আলোচনায় বায়তুল মোকাররমের ইমাম সিয়াম সাধনার পাশাপাশি বিত্তবানদের ইসলামী শরীয়ত মতে যাকাত আদায়ের আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, যাকাত ইসলামের পাঁচ স্তম্ভের অন্যতম। যার উপর যাকাত ফরজ তিনি যেন যথাযথভাবে যাকাত আদায় করেন। যাকাত আদায়ের মাধ্যমে একদিকে ইসলামের ফরজ মানা হবে, অন্যদিকে দারিদ্র বিমোচনে যাকাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। যাকাত আদায় না করলে কিয়ামতের দিন কঠিন শাস্তি ভোগ করতে হবে।

পবিত্র ঈদে সাদকাতুল ফিতর আদায়ের আহ্বান জানিয়ে বায়তুল মোকাররমের ইমাম আরো বলেন, সাদকাতুল ফিতর আদায় করুন। সিয়াম সাধনার এই মাসে বেশি বেশি করে দান সদকা দিন, এই দান সদকা আপনাকে বালা মুছিবত থেকে রক্ষা করবে। প্রিয় নবী (সা.) বেশি বেশি করে রমজানে দান সদকা করতেন।

মতামত...