,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সিরিয়ায় ৩২ আইএস জঙ্গি নিহত, যুক্তরাজ্যের নিন্দায় আসাদ

ঢাকা,০৭ ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম)::মৌলবাদী সন্ত্রাসী সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের হামলায় অন্তত ৩২ জন জঙ্গি নিহত হয়েছেন। আর বিমান হামলায় যুক্তরাজ্য অংশ নেওয়ায় নিন্দা জানিয়েছেন সিরীয় রাষ্ট্রপ্রধান বাশার আল-আসাদ, খবরsyria2 বার্তা সংস্থা এএফপি।

সিরিয়ার মানবাধিকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণকারী যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংস্থা এসওএইচআর জানিয়েছে, উত্তর সিরিয়ার রাকা প্রদেশে আইএস নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে প্রায় ১৫টি হামলায় অন্তত ৩২ জন নিহত হওয়া ছাড়াও আহত হয়েছেন আরো অন্তত ৪০ জন জঙ্গি। প্রাদেশের রাজধানী শহর রাকার উত্তর, পূর্ব ও দক্ষিণপূর্বাঞ্চলে আইএস’র প্রধান কার্যালয় ও বিভিন্ন ঘাঁটিতে এসব হামলা পরিচালনা করা হয়েছে।

আইএস ঘোষিত ‘খিলাফত’ ইসলামিক স্টেটের (ইরাক ও সিরিয়ায় আইএস’র দখলকৃত অংশ, যেখানে ‘শরিয়াহ আইন’-এর মাধ্যমে শাসনের দাবি করে আসছে সংগঠনটি) সিরিয়া অংশের রাজধানী হিসেবে রাকা ব্যবহৃত হচ্ছে। ফলে আইএস’র জন্য গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলটি স্বাভাবিকভাবেই অসংখ্যবার মার্কিন, রুশ ও সিরীয় বোমা হামলার লক্ষ্যে পরিণত হয়েছে।

ইরাক ও সিরিয়ায় আইএসবিরোধী বিমান হামলা মার্কিন নেতৃত্বে গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হলেও দিন দিন এর প্রসার বেড়েছে, বিশেষ করে গত মাসে প্যারিসে আইএস জঙ্গিদের হামলায় ১৩০ জন নিহত হওয়ার পর এতে অংশ নিয়েছে যুক্তরাজ্য, সহযোগিতার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জার্মানি।

ব্রিটিশ দৈনিক সানডে টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই হামলার নিন্দা জানিয়ে সিরীয় রাষ্ট্রপ্রধান বাশার আল-আসাদ একে ‘অবৈধ’ ও ‘সন্ত্রাসবাদ’ ছড়িয়ে পড়ার কারণ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

সন্ত্রাসকে তিনি ক্যান্সারের সঙ্গে তুলনা করে বলেন, ‘ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে দেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কেটে ফেলে দিতে পারেন না আপনি। ক্যান্সারের জীবাণু নির্মূল করতে হয়। এই ধরনের হামলা ক্যান্সারে আক্রান্ত অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কেটে ফেলে দেওয়ার মতো। এতে ক্যান্সার দেহের ভেতর আরো বেশি করে দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ে।’

সেনাবাহিনীর স্থল অভিযানের মাধ্যমে ‘বিস্তৃত পরিসরে’ কৌশল গ্রহণের মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘শুধু বিমান হামলার মাধ্যমে আইএস-কে পরাজিত করা সম্ভব নয়। সেনাবাহিনীর স্থল অভিযান ছাড়া আইএস-কে পরাজিত করা সম্ভব নয়। জনসাধারণ আর সরকারের সঙ্গে সমন্বয় না করলে ওদের হারানো যাবে না।’

প্রসঙ্গত, আইএস’র হামলার অনেক আগে থেকে গৃহযুদ্ধে জর্জরিত সিরিয়ায় সংকট সমাধানের উপায় হিসেবে আসাদ সরকারের পদত্যাগ বলে মনে করে পশ্চিমা বিশ্ব। আসাদ প্রশাসনের মিত্র দেশ রাশিয়া গত সেপ্টেম্বর থেকে দেশটিতে জঙ্গিদের নির্মূলে পৃথকভাবে বিমান হামলা শুরু করলেও তা স্বাভাবিকভাবে নেয়নি মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট।

মতামত...