,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সুদর্শন চোর!

cবিশেষ সংবাদদাতা, বিডিনিউজ রিভিউজঃ বন্দর নগরী চট্টগ্রামে গোয়েন্দা পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে সুদর্শন চোর! অনেকই    চিত্র জগতের তারকা অথবা  মডেল তারকা ভেবে বস্তেও পারেন! আসলে সে নায়কও নয়, মডেলও নয়! সে একজন পেশাদার সুদর্শন চোর! মোটরসাইকেল চুরি করা তার পেশা। নাম তার মো. জুয়েল।

বন্ধুত্বের আড়ালে হায়দার আলী নামে এক যুবকের মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগে ১৬ অক্টোবর জামাল খান এলাকার নিজ বাসা থেকে জুয়েলকে আটক করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ এবং একটি পালসার ব্র্যান্ডের চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে হায়দার আলীর মোটরসাইকেল চুরি করার বিষয়টি স্বীকার করেছে জুয়েল। তার দলে ৪-৫ জন সদস্য রয়েছে পুলিশকে জানিয়েছে সে।

নগর ডিবি জানায়, মোটরসাইকেল চুরি করার উদ্দেশে হায়দার আলীর সাথে বন্ধুত্ব তৈরি করে জুয়েলসহ অন্য সহযোগীরা। গত ৯ অক্টোবর রাত ১০টার দিকে দুর্গাপূজা দেখার কথা বলে হায়দারকে প্রথমে জামাল খান এলাকার সিঁড়িগোড়া এলাকায় নিয়ে যায় জুয়েল। এরপর চা খাওয়ার কথা বলে হায়দারকে অদূরের একটি চায়ের দোকানে নিয়ে যায় জুয়েল এবং তার সহযোগী আলী। ওই হোটেলের সামনে মোটরসাইকেলটি রেখে চা পান করতে তিনজনে ঢুকে ওই হোটেলে। এ সময় হায়দারের জন্য আনা চায়ে কৌশলে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে দেয় জুয়েল। এক পর্যায়ে হায়দার অজ্ঞান হয়ে গেলে তার পকেট থেকে চাবি নিয়ে মোটরসাইকেল চুরি করে চম্পট দেয় তারা। জ্ঞান ফিরলে হায়দার দেখেন যে, জুয়েল ও আলী হোটেলে নেই। তার মোটরসাইকেলটি চুরি করে চম্পট দেয় জুয়েল ও আলী। পরে মোটরসাইকেল ফেরত দেওয়ার কথা বলে পরিচয় গোপন রেখে অজ্ঞাত স্থান থেকে হায়দার আলীর কাছে এক লাখ টাকা দাবি করে জুয়েল।

নগর ডিবির পরিদর্শক হুমায়ন কবীর জানান, আটকের জুয়েল হায়দার আলীরসহ একাধিক মোটরসাইকেল চুরির বিষয়টি স্বীকার করেছে জুয়েল।  সোমবার বিকেলে এ প্রতিবেদন তৈরির সময় সহযোগীদের ধরতে জুয়েলকে নিয়ে নগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম বাঁশখালীতে অভিযান চালাচ্ছিল বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ সোমবার সন্ধ্যায় পুলিশ কুতুবদিয়া থেকে হায়দারের মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। এ সময় জুয়েলের সহযোগী আলীকে গ্রেফতার করা হয়।

জুয়েলের বিরুদ্ধে নগরের কোতোয়ালি থানায় চুরি, মারামারির একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশ জানায়, জুয়েলের বাবার নাম হারুন অর রশিদ। জামাল খানে একটি ভবনের চতুর্থ তলায় পরিবার নিয়ে থাকেন হারুন। নগরের বাণ্ডেল রোডের আল মাদানী মার্কেট ‘মদিনা পারফিউমারী অ্যান্ড কেমিক্যাল’ নামে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে হারুনের।

মতামত...