,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সেই কুমারি মা বিউটির ধর্ষনের মামলা ভগ্নিপতির বিরুদ্ধে

শিশু-1-525x350নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা ,বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম::  রাজধানীর বেইলি রোডে কদিন আগে নিজের সদ্যজাত সন্তানের পিতৃপরিচয় দিতে না পারার আশঙ্কায় পাঁচতলা ভবনের উপর থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে আলোচনায় আসা এক  বাসায় গৃহকর্মী হিসেবে কর্মরত সেই কুমারি  মা বিউটি আক্তার (১৬) তার ভগ্নিপতি নীরবের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন।

রাজধানীর রমনা থানায় ওই কিশোরী বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে মামলাটি  দায়ের করে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রমনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হুমায়ুন কবীর  আজ বুধবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এসআই হুমায়ুন বলেন, ‘এজাহারে মেয়েটি দাবি করেছে, ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর তিনি গর্ভধারণ করেন। সামাজিক লজ্জার ভয়ে নবজাতককে বাড়ির বারান্দা থেকে ফেলে দিয়েছিলেন।’ মামলাটি তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।  এদিকে কিশোরী মা বর্তমানে তেজগাঁও ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে চিকিৎসাধীন। নবজাতককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। গত সোমবার দুপুরে বেইলি রোডের একটি ভবনের পাঁচতলা থেকে এক নবজাতককে ফেলে দেওয়া হয়। পাশের একতলা বাড়ির ছাদ থেকে শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয় পুলিশ। তখন পুলিশ বহুতল ওই ভবনের পঞ্চম তলার ফ্ল্যাটে গিয়ে দুই গৃহকর্মীকে দেখতে পায়, যাদের একজন ওই শিশুটির মা বলেও নিশ্চিত হয়। অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধারের পর তাকেও হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ।  চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিউটি আক্তার জানান, তার বাবার নাম আবু বকর প্রামাণিক। তাদের গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার নওকর গ্রামে। ঢাকায় বেইলি রোডের ২৬ নম্বর প্রপার্টিজ ম্যানশনের পাঁচতলায় আজমল হক ও ফিরোজা হকের বাসায় ৯ বছর ধরে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করে সে। বিউটি আরও জানায়, ৯-১০ মাস আগে কুমিল্লায় বড় বোন লিপি আক্তারের বাসায় বেড়াতে যায় বিউটি। সেখানে তার বোনের স্বামী নীরব ঘুমের ওষুধ খাইয়ে তাকে ধর্ষণ করেন। পরে সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে। কিন্তু এ কথা সে কাউকে জানতে দেয়নি। এদিকে উপর থেকে ফেলে দেওয়ায় শিশুটির বাঁ পায় ভেঙে গেছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন ।

 

বিএনআর/১৬২১০/০০০৪ /এন

মতামত...