,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সেনা ক্যাম্প প্রতাহারের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে হরতাল পালিত

aআবদুল মান্নান, মানিকছড়ি সংবাদদাতা, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ খাগড়াছড়ি, ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপ্লেক্স’ এর ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে (৪ ব্রিগেড ব্যতিত) সকল সেনা ক্যাম্প প্রত্যাহারে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার প্রতিবাদে এবং সম্প্রতি পানছড়ি থেকে অপহৃত বাঙ্গালী মোটর সাইকেল চালক মোহাম্মদ হোসেনকে উদ্ধারসহ মানিকছড়িতে বাঙ্গালী হত্যা ও নিহতের বসতবাড়ীতে অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে গতকাল ৯ মে খাগড়াছড়ি জেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালন করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী সংগ্রাম পরিষদ। হরতালের কারণে জেলা থেকে দূরপাল্লার কোন গাড়ী ছেড়ে যায়নি। জেলা শহরে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী সংগ্রাম পরিষদ ও পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ নেতৃবৃন্দ।
উল্লেখ্য যে, গত ৮ মে ঢাকার বেইলি রোডস্থ এলাকায়‘পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপ্লেক্স’ এর ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে ৪টি ব্রিগেড ব্যতিত সকল সেনা ক্যাম্প প্রত্যাহারের ঘোষণা ও অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণের ক্ষেত্রে বাঙ্গালীদের সাথে বৈষম্যমূলক আচরণ এবং এ অঞ্চলের বাঙ্গালীদেরকে সমতলে সরিয়ে নিতে ইউএনডিপি’র অসাংবিধানিক প্রস্তাবসহ বাঙ্গালী সংগ্রাম পরিষদের ৭ দফা দাবী আদায়ের দাবীতে ওই সন্ধ্যায় পার্বত্য বাঙ্গালী সংগ্রাম পরিষদের প্রেস সচিব মো. ওমর ফারুক স্বাক্ষরিত বার্তায় এ হরতাল আহব্বান করা হয়। এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রামে উপজাতি উগ্র সন্ত্রাসী কর্তৃক বাঙ্গালী অপহরণ,গত্যা,গুম, ধর্ষণ, চাঁদাবাজি ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাসহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদে পার্বত্য বাঙ্গালী সংগ্রাম পরিষদ, পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদসহ অঙ্গসংগঠন দিন ব্যাপি এ হরতাল কর্মসূচী ঘোষনা করেন। হরতাল চলাকালে জেলার কোথাও কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে জেলা সদরে এ্যাডভোকেট আবদুল মোমেন এর সভাপতিত্বে এক বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। সকাল থেকে খাগড়াছড়ির প্রবেশদ্বার মানিকছড়িতে পিকেটিং করেছে বাঙ্গালী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের সদস্যরা। ফলে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী বাস-ট্রাকগুলো মহামুনি বাসস্টেশনে আটকা পড়ে যায়। ফেনী থেকে ছেড়ে আসা গাড়ী রামগড় থেকে ফিরে যায়। বিকাল সাড়ে ৪টায় জেলা শহরে পার্বত্য বাঙ্গালী সংগ্রাম পরিষদ ও পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদসহ অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ এক সমাবেশে বাঙ্গালী নেতৃবৃন্দ বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামকে নিয়ে দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র জোরালো হচ্ছে। ইউএনডিপি এখানকার বাঙ্গালীদেরকে সমতলে সরিয়ে নিতে অসাংবিধানিক ও অকল্পনীয় স্বপ্নে মেতে উঠেছে। উপজাতি উগ্র গোষ্টিগুলো বাঙ্গালীদের বিরুদ্ধে একের পর এক হত্যা, অপহরণ চালিয়ে যাচ্ছে। পানছড়ি থেকে অপহৃত মোটর সাইকেল চালক মোহাম্মদ হোসেনকে এখনো পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি। অনতিবিলম্বে পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় এবং এ অঞ্চলে বসবাসরত পাহাড়ী-বাঙ্গালীদের আনুপাতিক হারে মূল্যায়নসহ সর্বক্ষেত্রে বাঙ্গালীদের অবহেলা, অবমূল্যায়ন নীতি পরিহারে সরকারের প্রতি জোর দাবী জানানো হয়।
এদিকে হরতাল চলাকালে আইন-শৃংখলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ সর্বত্র সর্তক ছিল । মানিকছড়ি থানার ও.সি মো. শফিকুল ইসলাম জানান, হরতাল চলাকালে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করায় কোথাও কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

মতামত...