,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

স্বাধীনত ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রচেষ্টার ফলঃ আমু

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, ১৯, ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):325 যারা বাংলাদেশকে ভারতের দালাল মনে করে তারা মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের অবদানকেও অস্বীকার করেছিলেন। ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রচেষ্টার ফলেই স্বাধীনতা এসেছে। ভারত-বাংলাদেশের এই মৈত্রী সম্পর্কের মাধ্যমেই এসব স্বাধীনতা বিরোধীদের প্রতিহত করতে হবে।

শনিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সমিতির আয়োজনে সেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারত অস্ত্র দিয়ে, প্রশিক্ষণ দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করেছিল। এমনকি ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্ধিরা গান্ধী বাংলাদেশের পক্ষে জনমত গঠনের জন্য বিশ্বসফরে গিয়েছিলেন।’

‘বর্তমান সময়ের স্বাধীনতা বিরোধীরা পেট্রোল বোমা মেরে, বাস-গাড়ি পুড়িয়ে আন্দোলনের নামে গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি গণহত্যাকারীদের মত নব্য এসব গণহত্যাকারীদেরও বিচার করা উচিৎ।’ বলে মন্তব্য করেন আমু।

বিজয় দিবসের উৎসবে সেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিকে স্বাগত জানিয়ে শ্রী রাজেস উইকি বলেন, ‘বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যে মৈত্রী সম্পর্ক তৈরি হয়েছে তা আগামীতেও অটল থাকবে।’ এ সময় বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ভারতের ১১ হাজার শহীদ যোদ্ধার প্রতি শ্রদ্ধা জানান তিনি।

সমিতির সভাপতি অ্যামিরেটাস অধ্যাপক এ কে আজাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন ভারতীয় দূতাবাসের প্রথম রাজনৈতিক ও তথ্য বিষয়ক সচিব শ্রী রাজেস উইকি, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমেদ মজুমদার, মুক্তিযোদ্ধা আহসান উল্লাহ মনি প্রমুখ।

মতামত...