,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

হাইকোর্টের রায় ‘যুগান্তকারীঃ বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ঢাকা, বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করতে করা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীকে অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়কে ‘যুগান্তকারী’ হিসেবে অভিহিত করেছে বিএনপি।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘হাইকোর্টর রায় যুগান্তকারী ও ঐতিহাসিক। এই রায়ের মাধ্যমে বিচার বিভাগের মর্যাদা বৃদ্ধি পেল। উচ্চ আদালত সম্পর্কে জনগণের আস্থা আরো দৃঢ়তর হলো।’

এই রায়কে সাধুবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এই রায়ের মধ্য দিয়ে আবারো ন্যায়বিচার পাওয়ার সম্ভাবনা সুগভীরভাবে নিশ্চিত হলো। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল এই ঐতিহাসিক রায়কে সাধুবাদ জানাচ্ছে।’

ষোড়শ সংশোধনীকে অবৈধ ঘোষণার এই রায়ে জনগণ, দেশের সুশীল সমাজ তথা সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে ন্যায়বিচার পাওয়ার আশা জেগে উঠেছে বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘সংসদের ওপর বিচারপতি অভিশংসনের ক্ষমতা থাকলে যে দল সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠ থাকে, তারা ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে। তারা বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষেত্রে ব্যাপকভাবে রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তার করতে পারে। রাজনৈতিক কারণে বিচারপতিরা হেয় হতে পারেন, ইম্পিচমেন্ট হতে পারেন।’

অভিশংসনের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের হাতে থাকলে বিচারপতিরা স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারেন মন্তব্য করেন রুহুল কবির রিজভী।

বাহাত্তরের সংবিধানে সংসদের ওপর বিচারপতিদের অসদাচরণের জন্য অভিশংসনের ক্ষমতা ছিল জানিয়ে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘পরবর্তীতে যখন বাকশাল গঠিত হয়, তখন এটা রাষ্ট্রপতির হাতে ন্যস্ত হয়। এরপর সমস্ত বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণ করে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আমলে বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের ওপরে ন্যস্ত করা হয়। এটি সকলের দ্বারা সমাদৃত ছিল। কারণ, এখানে দলীয় প্রভাবের কোনো সুযোগ ছিল না।’

মতামত...