,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণ আজ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

Pmনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ  ‘হত দরিদ্রদের জন্য খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় হতদরিদ্র ৫০ লাখ পরিবার মার্চ, এপ্রিল এবং সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর- এই পাঁচ মাস এই সুবিধা পাবে। ১০ টাকা কেজি দরে মাসে ৩০ কেজি পর্যন্ত চাল কিনতে পারবে তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুড়িগ্রামের চিলমারী থানাহাট এ ইউ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সকাল সাড়ে ১০টায় ‘হত দরিদ্রদের জন্য খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির’ উদ্বোধন করবেন।

‘শেখ হাসিনার বাংলাদেশ, ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশ’ এই- স্লোগানে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে বছরে সাড়ে সাত লাখ টন চাল বিতরণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে সংশ্লিষ্ট কমিটি প্রতি ৫০০ পরিবারের জন্য একজন করে ডিলার নিয়োগ করবে। হতদরিদ্র পরিবারের সংখ্যা ঠিক করে তাদের কার্ড দেওয়া হবে।

নারী, বিধবা ও প্রতিবন্ধী নারী প্রধান পরিবারকেই প্রাধান্য দেওয়া হবে এ কর্মসূচিতে।

সকালে হেলিকপ্টারে করে ঢাকা থেকে কুড়িগ্রাম যাবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে এ কর্মসূচি উদ্বোধনের পর থানাহাট এ ইউ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সুধী সমাবেশে বক্তব্য দেবেন।

কুড়িগ্রাম জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের অফিস জানায়, জেলায় মোট এক লাখ ২৫ হাজার ২৭৯টি পরিবার খাদ্যবান্ধব কার্ডের মাধ্যমে এ কর্মসূচির সুফল পাবে।

এর মধ্যে চিলমারীর আট হাজার ২১টি দরিদ্র পরিবারকে এই কার্ড দেওয়া হয়েছে। কুড়িগ্রাম সদরে ১৭ হাজার ৭২২টি, নাগেশ্বরীতে ২৪ হাজার ২০টি, ভুরুঙ্গামারীতে ১৩ হাজার ৯৮৫টি, ফুলবাড়ীতে ৯ হাজার ২৯৮টি, রাজারহাটে ১০ হাজার ৬০২টি, উলিপুরে ২৪ হাজার ২০৮টি, রৌমারীতে ১২ হাজার ৬৮৫টি এবং রাজীবপুর উপজেলায় ৪ হাজার ৭৩৮টি কার্ড বিতরণ প্রক্রিয়াধীন।

চাল বিক্রির জন্য জেলায় ২৪৭ জন সম্ভাব্য ডিলারের মধ্যে ১২৬ জনকে ইতোমধ্যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

দরিদ্র জনগোষ্ঠির জন্য সরকারের খাদ্য কর্মসূচি- ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং বা ভিজিএফ কার্ড বাতিল করে ৫০ লাখ পরিবারকে পল্লী রেশনিং কার্ড দেওয়ার কথা কয়েক মাস আগে জানিয়েছিলেন খাদ‌্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম।

উদ্দেশ‌্য, এই কার্ডের মাধ্যমে পরিবারগুলোকে সুলভ মূল্যে চাল বা গম দেওয়া।

গত ২৭ অগাস্ট খাদ‌্যমন্ত্রী জানান, সেপ্টেম্বর থেকেই ১০ টাকায় চাল পাবেন দুঃস্থরা।

গত ১ সেপ্টেম্বর সীমান্ত ব‌্য‌াংকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও পল্লী রেশনিং নিয়ে কথা বলেন।

তিনি সেদিন বলেন, “হতদরিদ্র, পঙ্গু, প্রতিবন্ধীদের জন্য এই ব্যবস্থা চালু করব। এই রেশন কার্ড যাদের হাতে থাকবে, তারা মাত্র ১০ টাকায় চাল কিনতে পারবে।”

মতামত...