,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

১৮ জেলার ৮৬ মানবপাচারকারী শনাক্ত

coxকক্সবাজার, ০৩ ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম) :: মিয়ানমার থেকে ফেরত আনা ৪৮ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ১৮ জেলার ৮৬ জন মানবপাচারকারী দালালের নাম শনাক্ত করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে থাকা ৪৩ জনকে পুলিশের জিম্মায় বাড়ি পাঠানোর আগে এমন তথ্য জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফেরদৌস আহমদ।

তিনি জানান, বুধবার মিয়ানমার থেকে ফেরত আনা ৪৮ অভিবাসি প্রত্যাশীর মধ্যে ৫ জন অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছিল। এ ৫ জনকে আদালতের নির্দেশ মতে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির জিম্মায় বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ি পাঠানো হয়। আইনি প্রক্রিয়া শেষে অপর ৪৩ জনকে শুক্রবার পাঠানো হয়। এদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ৮৬ জন দালালের নাম পাওয়া গেছে। এসব দালালদের নামে দেশের ১৮টি জেলায় ১৮টি মামলা দায়ের করা হবে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিলিমা রায়হানা জানান, বুধবার ঘুমধুম সীমান্ত দিয়ে মিয়ানমার থেকে এ ৪৮ জনকে দেশে নিয়ে আসা হয়। দালালের খপ্পড়ে পড়ে সাগর পথে মালয়েশিয়ায় যেতে গিয়ে বিভিন্ন মেয়াদে ভাসমান ছিল এসব মানুষ। গত মে মাসে দুই দফায় মিয়ানমারের জলসীমা থেকে উদ্ধার হয়েছিল ৯৩৫ জন। যার মধ্যে ৭ দফায় বাংলাদেশি হিসেবে শনাক্ত ৭৭৭ জনকে ফেরত আনা হয়। যার সর্বশেষ ৪৮ জনকে আনা হয় বুধবার। এদের মধ্যে ৫ শিশুকে আদালতের নির্দেশ মতে বৃহস্পতিবার রাতে রেড ক্রিসেন্টের জিম্মায় বাড়ি পাঠানো হলেও অপর ৪৩ জনকে পাঠানো হয় শুক্রবার। এর বাইরে আর কোন বাংলাদেশি মিয়ানমারে রয়েছে কিনা জেলা প্রশাসনের কাছে কোনো তথ্য নেই বলে জানান তিনি।

তবে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার ন্যাশনাল প্রোগ্রাম কর্মকতা আসিফ মুনীর জানিয়েছেন, মিয়ানমারের আরো ১০ থেকে ১২ জন বাংলাদেশি রয়েছে বলে তাদের কাছে তথ্য রয়েছে। এসব মানুষের তথ্য যাচাই বাছাই চলছে। এর বাইরেও অনেক নিখোঁজের স্বজন তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করার পরাশর্ম দেয়া হচ্ছে।

এদিকে, দীর্ঘ ভোগান্তি জীবন মরণের পথ পেরিয়ে ফেরত আসা মানুষগুলো এ মরণ যাত্রার দালালের বিচারের দাবি জানিয়েছেন। তারা বলেছেন, এ পথে যেন কেউ পা না দেয়। অনেকদিন পর নিজের স্বজনকে ফেরত পেয়ে আনন্দ অশ্রুসিক্ত অভিভাবকরা। তারাও এসব দালালের বিচারের দাবি জানিয়েছেন।

মতামত...