,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

৬০ কোটি টাকার কোকেনসহ আটক জুলিয়ান মুখ খুলছেন না

  নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):: ৩ কেজি কোকেনসহ বাংলাদেশে গ্রেপ্তার হওয়া স্পেনের নাগরিক সিয়াস স্পেজো জুলিয়ান একজন পেশাদার মাদক চোরাকারবারী বলে মনে করছেন তদন্তকারিরা । গ্রেপ্তারের ৭২ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে অনানুষ্ঠানিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি মুখ খুলছেন না।kokn

তাদের ধারনা সে আসলে ইংরেজি জানেন, ইচ্ছে করেই ইংরেজিতে কথা বলছেন না। তার জন্য দোভাষী নিয়োগ করা হয়েছে। তবে প্রতিবারই তিনি কোকেন পাচারের ঘটনার সঙ্গে নিজের সংশ্লিষ্টতার কথা অস্বীকার করছেন।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা মেট্রো অঞ্চলের উপ-পরিচালক মুকুল জ্যোতি চাকমা শুক্রবার  জানান, জুলিয়ান অত্যন্ত ধুরন্ধর প্রকৃতির। এ পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদে মনে হয়েছে, সে খুবই পেশাদার। ইতোপূর্বে কোকেনসহ যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল তারা ছিল শুধু বাহক। কিন্তু জুলিয়ানের সঙ্গে হয়তো আন্তর্জাতিক মাদক পাচারকারী মূল চক্রের সম্পর্ক আছে।

জুলিয়ানের নামে রাজধানীর মতিঝিলে হোটেল প্যাসিফিকে যে রুমটি বুকিং করা হয় সেটি সিঙ্গাপুর থেকে একটি এজেন্সির মাধ্যমে বুকিং দেয়া হয়েছিল। জুলিয়ানকে কোকেনের বিষয়ে বারবার জিজ্ঞাসা করা হলেও তিনি মুখ খুলছেন না। স্পেন দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাচ্ছেন সে।

মুকুল জ্যেতি চাকমা জানান, বৃহস্পতিবার জুলিয়ানকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়। আদালত আগামী সোমবার শুনানির দিন ধার্য করেছেন। রিমান্ডে এনে জিঙ্গাসাবাদ করা হলে আরো অনেক তথ্য বেরিয়ে আসবে।

গত মঙ্গলবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জুলিয়ানকে ৩ কেজি কোকেনসহ গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি স্পেন থেকে ব্রাজিল হয়ে দুবাই থেকে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে বাংলাদেশে আসেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, কাস্টম শুল্ক ও গোয়েন্দা অধিদপ্তর এবং এপিবিএন তাকে গ্রেপ্তার করে।

প্রাথমিক অবস্থায় তার লাগেজ কিংবা শরীর তল্লাশী করে কোকেন পাওয়া যায়নি। পরে তার সঙ্গে থাকা লাগেজ ভেঙে তার ভেতর বিশেষ কার্বন পেপার দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় তিনটি প্যাকেটে  তিন কেজি কোকেন উদ্ধার করা হয়। যার ফলে স্ক্যানিং মেশিনেও কোকেনের অস্থিত্ব ধরা পড়েনি। উদ্ধারকৃত কোকেনের আনুমানিক বাজার মূল্য ৬০ কোটি টাকা বলে জানা গেছে।

 

মতামত...